৩০ জানুয়ারী ২০২৩, সোমবার,
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
K T V Clock
মাত্র ১৮ শতাংশ জনগণ মনে করেন লিজ ভালো কাজ করছেন
Poll: চাঞ্চল্যকর সমীক্ষা, লিজ ট্রাসের পদত্যাগের পক্ষে ব্রিটেনের অধিকাংশ জনগণ
কলকাতা টিভি ওয়েব ডেস্ক
কলকাতা টিভি ওয়েব ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১-১০-২০২২, ৫:৪৯ অপরাহ্ন
Poll: চাঞ্চল্যকর সমীক্ষা, লিজ ট্রাসের পদত্যাগের পক্ষে ব্রিটেনের অধিকাংশ জনগণ
ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাস

লন্ডন: ক্ষমতায় বসার পরই প্রাথমিক ভুল পদক্ষেপ, আর তার জেরে ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাসের (Liz Truss) ব্যক্তিগত পোল রেটিংয়ে একেবারে হলস্থুল কাণ্ড, প্রভাব পড়েছে ব্রিটেনের আর্থিক বাজারেও। গত শুক্রবার হওয়া এক সমীক্ষায় বলছে, ব্রিটেনের অর্ধেক মানুষই চাইছেন লিজ প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করুন। সে দেশের মাত্র তিন শতাংশ জনগণ তাঁর পদক্ষেপকে সমর্থন করেছেন। 
এখনও চার সপ্তাহ হয়নি প্রধানমন্ত্রী (Prime Minister) গদিতে বসেছেন লিজ। ক্ষমতায় বসার পরপরই বিপর্যয়কারী সিদ্ধান্ত। ব্রিটেনে (UK) এমনিতেই এখন আর্থিক মন্দা চলছে, সাধারণ মানুষ জীবযাপনের খরচ চালাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন। তার মধ্যে তিনি এক মিনি-বাজেটে ধনীদের জন্য কর ছাড় দিয়েছেন। ইউগভ (YouGov)-এর করা সমীক্ষায় উঠে এসেছে, ব্রিটেনের ৫১ শতাংশ জনগণই চাইছেন ইস্তফা দিক বর্তমান প্রধানমন্ত্রী।  
একাধিক কেলেঙ্কারির বিষয় সামনে আসায় বরিস জনসন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পদত্যাগ করার পর গত ৬ সেপ্টেম্বর ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হন কনজার্ভেটিভ পার্টির নেত্রী লিজ। নেতৃত্বের প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাককে পরাজিত করেন তিনি। ব্রিটেনের আর্থিক মন্দার পূর্বাভাসের মধ্যে লিজের প্রতিশ্রুতিই ছিল যে তিনি তাৎক্ষণিক কর কমাবেন এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির দিকে মনোযোগ দেবেন। কিন্তু ক্ষমতায় বসার পর মিনি-বাজেটের সিদ্ধান্তে সেই প্রতিশ্রুতি চোখে না পড়ায় হতাশ হয়েছেন ব্রিটেনের অধিকাংশ জনগণ। আয়করে শীর্ষ হার বাতিল করা ছাড়াও, তুলে দেওয়া হয়েছে ব্যাঙ্কারদের বোনাসের একটি ক্যাপ।  

আরও পড়ুন : Vladimir Putin on West Colonisation : উপনিবেশ দখল নিয়ে আমেরিকাকে একহাত নিলেন পুতিন
এই অর্থনৈতিক প্যাকেজ যেমন নাটকীয়ভাবে সরকারের ঘাড়ে ঋণের বোঝা বাড়িয়ে তুলবে, তেমনই তাতে ব্যয় বিশ্লেষণের পূর্বাভাসের অভাব ছিল, রাজস্ব ও বাজেটের উপর জোরই দেওয়া হয়নি। যার জেরে আর্থিক বাজারে অবিলম্বে ধস দেখা দেয়, ডলারের তুলনায় পাউন্ডের দাম সর্বনিম্ন স্তরে নেমে আসে। পেনশন ফান্ডে ধস নামার আশঙ্কা ও উদ্ভূত পরিস্থিতি সামলাতে তারপর দিনই ব্যাঙ্ক অব ইংল্যান্ড (Bank of England) হস্তক্ষেপ করতে বাধ্য হয়। বিরোধী রাজনৈতিক নেতা এবং স্বতন্ত্র বিশ্লেষকরাও বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তকে বেপরোয়া ও উৎপাদন-বিরোধী বলে সমালোচনা করেছেন। বিভিন্ন মহলে সমালোচনার ঝড় উঠলেও, প্রায় এক সপ্তাহ চুপ ছিলেন লিজ। গত বৃহস্পতিবারই বিবিসি রেডিও এবং স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেলে মুখ খোলেন তিনি। তাঁর সরকারের সিদ্ধান্তের সপক্ষে সওয়াল করলেও কোনও ন্যায্য ব্যাখ্যা দিতে পারেননি বলে মনে করছে বিশ্লেষক মহল। 
YouGov-এর সমীক্ষায় ৪,৯১৮ জন প্রাপ্তবয়ষ্কের অংশগ্রহণ করেছেন, তাঁদের মধ্যে এক চতুর্থাংশ মনে করেন লিজের ক্ষমতায় থাকা উচিত। Ipsos-এর করা অপর এক সমীক্ষায় ১৮ শতাংশ জনগণ মনে করেন যে ট্রাস ভালো কাজ করছেন। সমীক্ষায় অংশ নেওয়া অধিকাংশেরই মত লেবার পার্টির নেতা কেইর স্টার্মার (Keir Starmer) ব্রিটেনের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে পারেন।

Tags : Liz Truss ,UK ,Prime Minister ,Poll ,resign ,লিজ ট্রাস ,ব্রিটেন ,প্রধানমন্ত্রী ,সমীক্ষা ,পদত্যাগ

শেয়ার করুন


© R.P. Techvision India Pvt Ltd, All rights reserved.