০৩ ডিসেম্বর ২০২২, শনিবার,
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
K T V Clock
ফিরোদাবাদে ‘হেমোরহেজিক’ ডেঙ্গুতে মৃত ৬০, প্রিয়াঙ্কার নিশানায় যোগী প্রশাসন
ফিরোদাবাদে ‘হেমোরহেজিক’ ডেঙ্গুতে মৃত ৬০, প্রিয়াঙ্কার নিশানায় যোগী প্রশাসন
  • আপডেট সময় : সেপ্টেম্বর
ফিরোদাবাদে ‘হেমোরহেজিক’ ডেঙ্গুতে মৃত ৬০, প্রিয়াঙ্কার নিশানায় যোগী প্রশাসন

নয়াদিল্লি: ডেঙ্গুর প্রকোপে উত্তরপ্রদেশে মৃত্যু ৬০। যার মধ্যে ৫০ জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে।  গত ১০ দিনে ফিরোজাবাদ জেলা ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে হু হু করে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই ফিরোজাবাদের ২০০ টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। যার মধ্যে ৫০ শতাংশের বেশি নমুনা ডেঙ্গুর জীবাণু ধরা পড়েছে।‌

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে ফিরোজাবাদ জেলা প্রশাসনকে সতর্ক করে বলা হয়েছে এই ডেঙ্গুটি আসলে ‘হেমোরহেজিক’ প্রকৃতির ডেঙ্গু। অত্যন্ত ভয়ানক ধরনের। কেউ আক্রান্ত হলেই দ্রুত প্লেটলেট কমতে থাকে। তার পর রক্তপাত এবং মৃত্যু। বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে এটি অত্যন্ত ভয়ানক। যদিও গত কয়েকদিনে পঞ্চাশটি শিশুর মৃত্যু, হু এর সর্তকতাকে সত্য প্রমাণ করছে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

জানা গিয়েছে, ন্যাশনাল সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল একটি প্রতিনিধি দল পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ইতিমধ্যেই পৌঁছেছেন ফিরোজাবাদে। আগামী সোমবারের মধ্যেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকে রিপোর্ট জমা দেবে দলটি।

আরও পড়ুন: মহড়ার খবরে সম্বিৎ ফেরার আগেই বিশৃঙ্খল মুম্বই বিমানবন্দরে জঙ্গি আতঙ্ক

হাসপাতাল চত্বরে আক্রান্ত শিশুরা

ফিরোজাবাদ ছাড়াও মথুরা ও আগ্রার মতো জেলাগুলিতেও  ডেঙ্গু আক্রান্তের খবর পাওয়া গিয়েছে। মথুরায় গত ১৫ দিনে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ১১ জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের অধিকাংশই গ্রামীণ এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে। মথুরাতেও মারা গিয়েছেন ১৫ জন।

দিল্লি থেকে ১০০ কিমি দূরে উত্তরপ্রদেশের হাপুরের একটি সরকারি হাসপাতালে দৃশ্য সামনে আসতে নড়েচড়ে বসেছে গোটা দেশ। হাসপাতালটিতে আক্রান্ত শিশুদের নিয়ে তাদের অভিভাবকেরা  এসেছেন চিকিৎসার জন্য। প্রতিটি ওয়ার্ডে প্রতিটি বেডে ডেঙ্গু আক্রান্তদের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। বেকায়দায় পড়তে হয়েছে যোগীরাজ্য স্বাস্থ্য পরিষেবাকে।‌ এরই মধ্যে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগে তিনজন চিকিৎসককে বরখাস্ত করেছে যোগী প্রশাসন। জানা গিয়েছে ফিরোজাবাদ ও মথুরায় পরিস্থিতির সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে নিজেই সেখানে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।

আরও পড়ুন:  দিল্লি পুলিশের চার্জশিট ‘ফ্যামিলি ম্যানের স্ক্রিপ্ট’, কটাক্ষ খালিদের

এমন পরিস্থিতিতে যোগী সরকাকে কাঠ গড়ায় তুলেছেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। শনিবার নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে সরাসরি যোগী প্রশাসনকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, “উত্তরপ্রদেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। করোনা পরিস্থিতির থেকে কি আদৌ শিক্ষা নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ? সরাসরি প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।”

 

করোনার তৃতীয় ঢেউ যখন ইতিমধ্যে কামড় বসাচ্ছে রাজ্যে, সেই সময় এই ডেঙ্গুর প্রকোপ কিভাবে রুখবেন যোগী? নাকি ফের মৃতদেহের সারি ভাসবে গঙ্গায়। পরিস্থিতির দিকে তাকিয়ে রয়েছে গোটা দেশ।

Tags :

শেয়ার করুন


© R.P. Techvision India Pvt Ltd, All rights reserved.