Placeholder canvas

Placeholder canvas
HomeScrollমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের নিরাপত্তায় মোতায়েন হুলা পার্টি

মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের নিরাপত্তায় মোতায়েন হুলা পার্টি

নজরিদারিতে রাখা হয়েছে হাতি তাড়ানোর কাজে বিশেষ দক্ষ ঐরাবত ভ্যান

Follow Us :

বাঁকুড়া: মাধ্যমিক ( Madhyamik Exam 2024) পরীক্ষার্থীদের জঙ্গলপথে যাতায়াত নিরাপদ করতে বিভিন্ন ব্যবস্থা নিয়েছেন বন দফতর। হাতির আতঙ্কে মোতায়েন করা হল হুলা পার্টি। গাড়িতে করে পরীক্ষার্থীদের নিয়ে যাওয়া হল পরীক্ষাকেন্দ্রে। গত বছর জলপাইগুড়িতে হাতির হানায় মৃত্যু হয়েছিল এক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর। সেই অভিজ্ঞতা থেকে এবর বাঁকুড়ার হাতি উপদ্রুত (Bankura Elephants Harassed) জঙ্গলমহলে (Jungle Mahals) মাধ্যমিক পরীক্ষাকে ঘিরে কড়া সতর্কতা বন দফতরের (Forest Department)। সকাল থেকেই নিরাপত্তার মোড়কে বাঁকুড়ার হাতি উপদ্রুত এলাকা।

প্রবাদ আছে যেখানে বাঘের ভয় সেখানেই সন্ধ্যা হয়। বাঘের ভয় না থাকলেও বাঁকুড়ার জঙ্গল ঘেরা পাঁচটি ব্লকে এখন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ৫৮ টি বুনো হাতি। এবছর মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরুর সময় অনেকটা এগিয়ে আসায় পরীক্ষার্থীরা যখন বাড়ি থেকে পরীক্ষা কেন্দ্রের উদ্যেশ্যে রওনা দিচ্ছে তখন ঘন কুয়াশায় ঢাকা চারিদিক। বাঁকুড়া জেলায় এমন শতাধিক গ্রাম রয়েছে যেখান থেকে হাতি উপদ্রুত জঙ্গলপথে পরীক্ষার্থীদের রওনা দিতে হচ্ছে পরীক্ষার্থীদের। ঘন কুয়াশায় দৃশ্যমানতা কম থাকায় ওই জঙ্গলপথে যে কোনও মূহুর্তে হাতির সামনে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। তার থেকে যেকোনও সময় ঘটে যেতে পারে দুর্ঘটনা। একদিকে সেই আশঙ্কা আর অন্যদিকে গত বছর জলপাইগুড়ি জেলায় হাতির হানায় মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর মৃত্যুর ভয়াবহ স্মৃতিকে সামনে রেখে এবারের মাধ্যমিক পরীক্ষা নির্বিঘ্ন ও নিরাপদ করাই বন দফতরের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ।

আরও পড়ুন: প্রধান শিক্ষক ছাড়াই মাধ্যমিক শুরু বলরামপুর স্কুলে

জীবনের প্রথম বড় পরীক্ষা দিতে গিয়ে যাতে কোনও ভাবেই পরীক্ষার্থীরা সমস্যায় না পড়ে সেজন্য একাধিক পদক্ষেপ করেছে বন দফতর। প্রথমত হাতিগুলির সঠিক লোকেশান সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করে তা শেয়ার করা হচ্ছে স্থানীয় জঙ্গল ঘেরা এলাকার মানুষের সঙ্গে। বেশ কিছু তুলনামূলক নিরাপদ জঙ্গলপথ নির্দিষ্ট করা হয়েছে যেগুলি দিয়ে পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষা কেন্দ্রে যাতায়াত করতে পারবে। ওই পথগুলিতে পরীক্ষার্থীদের যাতায়াতের সময় মোতায়েন থাকছে হুলা পার্টি। নজরিদারির জন্য রাখা হয়েছে হাতি তাড়ানোর কাজে বিশেষ দক্ষ ঐরাবত ভ্যান। এরপরও কোনও ঝুঁকি নেয়নি বন দফতর। নিজেদের তত্বাবধানে পরীক্ষার্থীদের গাড়িতে করে বাড়ি থেকে পরীক্ষাকেন্দ্রে যথা সময়ে পৌঁছে দেওয়া এবং পরীক্ষা শেষে ফের তাদের বাড়িতে ফিরিয়ে দেওয়ার কাজও করছে বন দফতর। সবমিলিয়ে বন দফতরের কাছে এখন একটাই লক্ষ মাধ্যমিক পরীক্ষা নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন করা।

আরও অন্য খবর দেখুন

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments