Placeholder canvas

Placeholder canvas
HomeScrollশিলিগুড়িতে কংগ্রেসের সভার অনুমতি মিলল না, ক্ষুব্ধ অধীর

শিলিগুড়িতে কংগ্রেসের সভার অনুমতি মিলল না, ক্ষুব্ধ অধীর

বাংলাতে বাধা পেতে হবে ভাবিনি, মন্তব্য প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির

Follow Us :

কলকাতা: শিলিগুড়িতে রাহুলের ন্যায় যাত্রার সভার অনুমতি দিল না পুলিশ। মণিপুর, অসমের মতো পশ্চিমবঙ্গেও রাহুলের ভারত জোড়ো ন্যায় যাত্রাতে (Rahul Bharat Nyay Yatra) বাধা পাওয়ায় ক্ষুব্ধ প্রদেশ কংদ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। তিনি বলেন, এই রাজ্যেও বাধা পাব, ভাবিনি। যে ধরনের সহযোগিতা আশা করা হয়েছিল তা মিলছে না। এই যাত্রা ভোটের জন্য নয়। এটা সংবিধান রক্ষার যাত্রা। শুক্রবার শিলিগুড়িতে দলীয় নেতা-কর্মীদের উপস্থিতিতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন শেষে অধীর চৌধুরী (Adhir Chowdhury) বলেন, দুই বিজেপি (BJP Government) শাসিত রাজ্যে বাধার মুখে পড়েছিল রাহুলের ন্যায় যাত্রা। সেই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটল বাংলায়।

আগামী ২৮ জানুয়ারি শিলিগুড়িতে সভা ও পদযাত্রার ভাবনা ছিল কংগ্রেসের। সেইমতো পুলিশের কাছে অনুমতিও চাওয়া হয়। কিন্তু শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেট সভার অনুমতি দেয়নি বলে জানিয়েছেন অধীর। রাজ্যের তৃণমূল সরকারের (TMC Government) ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। লোকসভার বিরোধী নেতা বলেন,  শিলিগুড়িতে রাহুল গান্ধীর (Rahul Gandhi) সভার জন্য অনুমতি মিলছে না। এর আগের বার যখন রাহুল ভারত জোড়ো যাত্রা করেছিলেন তখন এত বাধার মুখে পড়তে হয়নি। এবার যা পড়তে হচ্ছে। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির কথায়, দেশের সংবিধান শেষ কথা। সেই সংবিধান মেনে চলতে হবে সকলকে। কেউ তার ঊর্ধ্বে নয়। এই সংবিধানের উপর কোনও আঘাত এলে কংগ্রেস সর্বপ্রথম এগিয়ে আসবে। 

আরও পড়ুন: হাওড়ার গৃহবধূ বিহারের মুখ্যমন্ত্রী পদের দাবিদার, জল্পনা তুঙ্গে

প্রদেশ কংগ্রেস নেতারা এখন শিলিগুড়িতে সভা করার জন্য বিকল্প জায়গা খুঁজছেন। দলের রাজ্য মুখপাত্র সৌম্য আইচ রায় জানান, পুলিশ অনুমতি না দিলেও সভা হবে। ন্যায় যাত্রা দুদিনের জন্য বন্ধ রেখে রাহুল বৃহস্পতিবার সকালেই দিল্লি উড়ে গিয়েছেন। রবিবার থেকে আবার তাঁর যাত্রা শুরুর কথা উত্তরবঙ্গে। রবিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও উত্তরবঙ্গে যাচ্ছেন। তিনি ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত উত্তরবঙ্গে থাকবেন বলে মমতা বৃহস্পতিবার কলকাতায় জানিয়েছেন। কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্ব চান অল্প সময়ের জন্য হলেও মমতা ন্যায় যাত্রায় থাকুন। এর আগে অসমে রাহুল দাবি করেছিলেন, ন্যায় যাত্রায় শামিল হওয়ার জন্য তিনি ইন্ডিয়া জোটের সব শরিককে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। মমতা অবশ্য তারপর বলেন, ন্যায় যাত্রা নিয়ে আমার সঙ্গে কোনও কংগ্রেস নেতার কথা হয়নি। বৃহস্পতিবার কংগ্রেসের জাতীয় মুখপাত্র জয়রাম রমেশ জানান, তৃণমূলকে অবশ্যই জানানো হয়েছে। মেল করা হয়েছে। রাহুল গান্ধী, মল্লিকার্জুন খাড়্গে তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলেছেন। এই অবস্থায় রাহুলের যাত্রা চলাকালীনই মমতার উত্তরবঙ্গ সফরে রাজনৈতিক তাতপর্য খুঁজে পাচ্ছেন রাজনীতির কারবারিরা। প্রশ্ন উঠেছে, তবে কি মমতা শেষ মুহূর্তে ন্যায় যাত্রায় হাজির হয়ে চমক দেবেন? 

আরও অন্য খবর দেখুন

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments