০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, বুধবার,
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
K T V Clock
দুই হাজার বছরের চিকিৎসা পদ্ধতি
Acupressure Treatment: সাইনাস, অ্যালার্জি, ব্যথা-বেদনায় ভুগছেন? আকুপ্রেসারের এই স্টেপগুলো ফলো করতে পারেন
কলকাতা টিভি ওয়েব ডেস্ক
কলকাতা টিভি ওয়েব ডেস্ক Published By:  নাইকুন নেসা
  • আপডেট সময় : ২৪-০১-২০২৩, ৬:০৭ অপরাহ্ন

কলকাতা: আবহাওয়া (Weather) বদলাচ্ছে তার নিজের মর্জিমতো। মঙ্গলবার সকাল থেকেই সর্বনিম্ন তাপমাত্রা (Temperature) বেশ চড়া। গায়ে গরম কিছু চাপিয়ে রাখা যাচ্ছে না। আবহাওয়ার (Weather) এই খামখেয়ালিপনার সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে আমাদের বেশ কিছুটা সময় লেগে যায়। এই সময় সাইনাস, মরশুমি অ্যালার্জি (Allergy) দেখা যায়। সাইনাস (Sinus), অ্যালার্জি , দীর্ঘদিন ধরে ব্যথা-বেদনায় ভোগা থেকে রেহাই পেতে হলে ছয় মিনিটের এই আকুপ্রেসার (Acupressure) পদ্ধতিটি চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

সুশ্রুত সংহিতার বর্ণনা অনুযায়ী, ছয় হাজার বছর আগে ভারতে আধুনিক আকুপ্রেসার (Acupressure) চিকিৎসা পদ্ধতি প্রচলিত ছিল। পরবর্তীকালে এই চিকিৎসা পদ্ধতি শ্রীলঙ্কা হয়ে চীনে ব্যাপক পরিচিতি পায়। আকুপ্রেসার (Acupressure), সুজোক, রিফ্লেক্সোলজি, জোন থেরাপি ইত্যাদি নামে সারা বিশ্বে এই পদ্ধতি জনপ্রিয়তা লাভ করে।

আরও পড়ুন:Hookah Bar: বন্ধ করা যাবে না হুক্কা বার, নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের 

বিশেষজ্ঞদের মতে, মাথাব্যথা, মাইগ্রেন (Migraine), সাইনাস(Sinus), আর্থ্রাইটিস, স্পন্ডলাইসিস (Spondylitis), লিভারের সমস্যা, অ্যালার্জির মতো একাধিক সমস্যায় আকুপ্রেসার (Acupressure) চিকিৎসা পদ্ধতিতে মুহূর্তের মধ্যেই মুক্তি পাওয়া যায়। এ ছাড়াও স্নায়ুর নানা সমস্যা, স্নায়ুর রোগ, পক্ষাঘাত, উচ্চ রক্তচাপ, থাইরয়েডের সমস্যাতেও এই পদ্ধতি অত্যন্ত কার্যকরী।

অ্যাকুপ্রেসার প্রাচীন চিকিৎসা পদ্ধতি। প্রায় দুই হাজার বছর আগে চীনে এই পদ্ধতি শুরু হয়। চীনা বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, শরীরকে রোগমুক্ত করতে এই পদ্ধতি ভালো কাজ করে।

মাত্র ছয় মিনিটে কীভাবে আকুপ্রেসার (Acupressure) চিকিৎসা করবেন?

প্রথমে দুই হাতের সাহায্যে নাকের ডগায় চাপ দিতে হবে, এর ফলে সাইনাসে চাপ তৈরি হবে। তাতে ব্যথা উপশম হবে। এরপর  ভুঁরুর উপরের দিকে টিপুন  যাতে কপালের চাপ মুক্তি পাবে। আরও ভালো ফলাফল পেতে ভুঁরুর উপরের প্রতিটি পয়েন্ট তিন মিনিট করে ধরে রাখুন। 

এছাড়া আর কী কী করা যেতে পারে?

স্টিমিং: শুষ্ক বায়ু মাথাব্যথা এবং মাইগ্রেন সৃষ্টি করে। স্টিমিং পদ্ধতি বাতাসে আর্দ্রতা যোগ করতে সাহায্য করে।

স্যলাইন ফ্ল্যাশ : সাইনাসের চাপ এবং কনজেশনের আর একটি সাধারণ চিকিৎসা হল স্যালাইন ওয়াশ। এতে লবণের স্প্রে রয়েছে যা নাকের আর্দ্রতা বাড়াতে সাহায্য করে।

নিয়ন্ত্রিত ঘুম : শরীরকে সুস্থ করতে সাহায্য করে।পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম হরমোন নিঃসরণ করতে এবং মস্তিষ্ক সজাগ রাখতে সাহায্য করে। 

হাইড্রেশন : অনেক সময়  ডাক্তাররা বলেন, ডিহাইড্রেশনের কারণে প্যাসেজ শুকিয়ে যায়, ফলে জল খাওয়ার পরিমাণ বৃদ্ধি করা জরুরি। হাইড্রেশন(Hydration) সাইনাসে বাধা কমায়।

সতর্কতা কীভাবে অবলম্বন করবেন জেনে নিন

* খাওয়ার পর বা ভরা পেটে আকুপ্রেসার (Acupressure) করা যাবে না।

* দিনে দু’বারের বেশি আকুপ্রেসার করা উচিত নয়।

* দিনে ২০ মিনিটের বেশি আকুপ্রেসার করা উচিত নয়।

* অন্তঃসত্ত্বা মহিলারা আকুপ্রেসার (Acupressure) করবেন না।

* আকুপ্রেসার শুরু করার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া জরুরি।

Tags : Acupressure Weather Temperature Allergy Sinus আবহাওয়া চিকিৎসা মাথাব্যথা আর্দ্রতা সাইনাস

0     0
Please login to post your views on this article.LoginRegister as a New User

শেয়ার করুন


© R.P. Techvision India Pvt Ltd, All rights reserved.