Placeholder canvas

Placeholder canvas
HomeScrollআজকে (Aajke) | অভিজিৎ দাস ববি এবং এই নির্বাচনে অভিষেকের জামানত বাজেয়াপ্ত

আজকে (Aajke) | অভিজিৎ দাস ববি এবং এই নির্বাচনে অভিষেকের জামানত বাজেয়াপ্ত

Follow Us :

বদহজম এক ধরণের রোগ এবং তা সবচেয়ে বেশি দেখা যায় রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে। আপনি বসে আছেন, মান্যগণ্য লোকজনও আছেন, দুপুরে ইলিশ, কাঁঠাল, চিংড়ি খেয়েছেন, বদহজম তো আর এমনিই হয় নি, কথা বলছেন এবং একটা চোঁয়া ঢেঁকুর আপনার হাজার আটকানোর পরেও সশব্দে বেরিয়ে এলো। আপনি অপ্রস্তুত, কিন্তু রাজনীতি তো সাধারণ মানুষজন করে না, বেশিরভাগই লজ্জা ঘেন্না ভয় তিন থাকতে নয়। তো তেনাদের বদহজম হয় এবং অনর্গল চোঁয়া ঢেঁকুর উঠতেই থাকে। রাজনীতিতে নেমেই রচনা ব্যানার্জী চারিদিকে শিল্পের ধোঁয়া দেখে ফেললেন, কেউ বলার নেই ওনাকে যে থামনা বাবা। ওদিকে ইদানিং তিনটে মিছিলে হাঁটলেই প্রতিবাদী আর মুখ খুললেই বিস্ফোরক তকমা পাওয়া যায় টিভি মিডিয়ার কাছ থেকে, তেমনই এক প্রতিবাদী রেখা পাত্র বললেন নরেন্দ্র মোদীর সরকার ক্ষমতায় এলে মমতার সরকার কে উৎখাত করা হবে আর লক্ষ্মীর ভান্ডার তিন মাসের মধ্যে বন্ধ করা হবে। মুখ খুলেছেন সশব্দে গন্ধযুক্ত চোঁয়া ঢেঁকুর বেরিয়েছে। প্রথমত উনি বলেছেন যদি নরেন্দ্র মোদির সরকার আসে, ওদিকে মোদিজী ৪০০ পারের শ্লোগান দিচ্ছেন, তারপরে লোকসভায় জিতেই রাজ্যের নির্বাচিত সরকার কে উৎখাত করা যায় না মামণি, কে বোঝাবে? তারপরে রাজ্যের মহিলারা যে লক্ষ্মীর ভান্ডার পেয়ে খুশি, তাদের কাছে খবর গ্যালো লক্ষ্মীর ভান্ডার বন্ধ হবে। ওদিকে মধ্য প্রদেশে লাডলি বহেনা স্কিমে একই ভাবে মহিলাদের টাকা দিচ্ছে সে রাজ্যের বিজেপি শাসিত সরকার, ওনার এগুলো জানার কথাও নয়, জানেন ও না, কিন্তু মুখ বন্ধ রাখতে পারছেন না কারণ ঐ বদহজম। কিছুদিন আগেই মা মমতা বলতেন, এখন ডাইনি বলেন, ঐ যে বদ হজম। ১৪৪ ধারার কথা ভুলে টলিউড সুন্দরী প্রাক্তন সাংসদ নুসরত জাহান ১৭৫ বলেছেন না ২৫৬ বলেছেন তা নিয়ে হাসার কোনও মানে হয়? আসলে তো ঐ বদহজম। ডায়ামন্ডহারবারের বিজেপি প্রার্থী নাম ঘোষণা হবার ঘন্টা খানেকের মধ্যে বলেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের জামানত জব্দ না করতে পারলে রাজনীতিই ছেড়ে দেবো, এই ভীষ্মের প্রতিজ্ঞা নিয়েই বিষয় আজকে, অভিজিৎ দাস ববি এবং এই নির্বাচনেঅভিষেকের জামানত বাজেয়াপ্ত।

ডায়মন্ডহারবারে প্রার্থী ঘোষণা নিয়ে টানাপোড়েনের মূলে ছিল গন্যমাণ্যদের প্রার্থী না হতে চাওয়া। কে আর মরিতে চায় বলো, বলে সবাই বল পাস করে দিচ্ছিলেন। এক অভিনেতা নাকি ৪০ টা জনসভা করবেন এই প্রতিশ্রুতি দিয়ে তার বদলে অনুরোধ ফিরিয়েছেন। অগত্যা অভিজিৎ দাস ববি। প্রথম তিনি ভূমিপুত্র, দ্বিতীয় তিনি এর আগে দুবার লোকসভাতে দাঁড়িয়েছেন, হেরেছেন। প্রথমবার ২০০৯ এ, পেয়েছিলেন ২.৮৮% ভোট, জামানত হারিয়েছিলেন। পরের বার ২০১৪, দেশ আক্রান্ত মোদি জ্বরে, উনি কষ্টেসৃষ্টে ১৫%, হ্যাঁ জামানত বাঁচিয়েছিলেন। এই ববি বাবু ওনার এফিডেবিটে জানিয়েছেন যে উনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম এস সি করেছেন ১৯৯৩ এ,  ব্যাচেলার অফ লাইব্রেরি সায়েন্স নিয়ে ডিগ্রি পেয়েছেন ১৯৯৪ এ, এবং তার ১৬ বছর পরে তিনি ২০১০ এ উৎকল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন পাশ করেছেন, কিন্তু ওনার ২০১৯ এ দেওয়া এফিডেবিট অনুযায়ী কোনও রোজগার নেই। যাই হোক পরের বার মানে ২০১৯ এ সিপিএম এর ভোট ২২% কমেছিল, সেটা গিয়েছিল বিজেপির ঝোলাতে, তাতেও ভোট ছিল ৩৩%, তৃণমূলের অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভোট ছিল ৫৬%। এবারে সারা রাজ্যজুড়ে বিজেপির হাওয়া আছে, দেশজুড়ে মোদি ওয়েভ, এটাতো অর্ণব গোসাঁই ও বলছে না। কিন্তু ডায়ামন্ড হারবারের বিজেপি প্রার্থী জানিয়ে দিয়েছেন তিনি অভিষেকের জামানত জব্দ করিয়ে দেবেন আর না পারলে রাজনীতিই ছেড়ে দেবেন। ঐ যে বদহজম, তারওপরে পাশে বসে বার খাইয়েছেন রূদ্রনীল, বলেছেন জিতবেন ববি, তো ববি উত্তেজিত হয়ে আবার চোঁয়া ঢেকুর বার করেছেন, জিতবেন তো বটেই জামানতও জব্দ করে দেবেন। আওমরা আমাদের দর্শকদের কাছে এই প্রশ্নই রেখেছিলাম যে কোন অংকে ডায়ামন্ডহারবারে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের জামানত জব্দ হতে পারে? তার সামান্যতম সম্ভাবনাও কি আছে?

নির্বাচনের প্রচার তুঙ্গে, পাল্লা দিয়ে গরমও বাড়ছে, এবং তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে উঠছে চোঁয়া ঢেকুর, সেই সশব্দ দুর্গন্ধযুক্ত ঢেকুর আমাদের সহ্য করতে হবে। বেলুড়মঠের সঙ্গে গুলিয়ে বালুর ঘাটকে কে বেলুরঘাট বলা হবে আবার জুমলাবাজি শুরু, এবারে ৩০০০ কোটি টাকা বিলোনও হবে বাংলার মানুষজনের মধ্যে, প্রধানমন্ত্রীর বদহজম এবং চোঁয়া ঢেকুর। ওদিকে শুভেন্দু অধিকারি ভাবলেন আমিই বা কম যাই কেন? উনিও একটি ছেড়েছেন, বা ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন, সব তো আর কন্ট্রোল করা যায় না, তিনি বলেছেন বাংলার মানুষকে সংগ্রামী ভাতা দেওয়া হবে। যারা তৃণমূল জামানাতে নিপিড়ীত তাঁরা পাবেন এই ভাতা। এমন ভাতা আগে দেওয়া হত, স্বাধীনতা সংগ্রামীরা পেতেন, উনি জানেন না আর এখন যে দল করছেন তার একজনও ঐ ভাতা পান নি, কারণ ওনারা ইংরেজদের দেওয়া ভাতা পেতেন। আর বাম সরকার এমন একটা ভাতা দিতেন, যাঁরা কংগ্রেসী আমলে বা রাজনৈতিক কারণে মার খেয়েছেন জেলে গেছেন, তাঁদের দেওয়া হত, তিনি এটাও জানেন না, কারণ তিনি তো আদতে কংগ্রেসী পরিবারের। কিন্তু চোঁয়া ঢেকুর তো বদহজমের জন্য হয়, তার জন্য বদহজম দায়ী, উনি নন।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Video thumbnail
Stadium Bulletin | Virat Kohli | বিরাট রাজের বিদায়
00:00
Video thumbnail
Sandeshkhali | সন্দেশখালির আন্দোলন কি সাজানো?
00:00
Video thumbnail
আমার শহর (Amar Sahar ) | ভোট যুদ্ধে যুযুধান দুই শিবির, জমজমাট বাঁকুড়ার ভোট
02:15
Video thumbnail
Dilip Ghosh | প্রার্থীকে ছাড়াই মেজিয়াতে দিলীপ ঘোষ, সুভাষ সরকারের দেখা না পেয়ে কটাক্ষ তৃণমূলের
01:27
Video thumbnail
Loksabha Election 2024 | কেশপুরের ভারপ্রাপ্ত বিজেপি নেতা তন্ময় ঘোষ গ্রেফতার
01:32
Video thumbnail
৪টেয় চারদিক | 'আমাকে চেনে না, মমতাকে হারিয়েছি', নন্দীগ্রাম নিয়ে হুঙ্কার শুভেন্দুর
47:59
Video thumbnail
Abhishek Banerjee | 'শান্ত বাংলাকে অশান্ত করতে চায় বিজেপি' : অভিষেক
17:24
Video thumbnail
Mamata Banerjee | সৌগত রায় ও সায়ন্তিকার প্রচারে জন্য আজ কলকাতার পথে মমতা
03:09
Video thumbnail
Nandigram | 'নন্দীগ্রামে বিজেপির গুন্ডাদের তাণ্ডব', বাড়িতে ঢুকে ভাঙচুর চালায় বিজেপি: তৃণমূল
02:06
Video thumbnail
Mayna BJP | ময়নাতে বিজেপি কর্মীর উপর হামলার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে
01:24