Placeholder canvas
HomeআজকেAajke | দেশের বড় শহরের মধ্যে কলকাতায় অপরাধ সবচেয়ে কম, শুভেন্দু শুনছেন?

Aajke | দেশের বড় শহরের মধ্যে কলকাতায় অপরাধ সবচেয়ে কম, শুভেন্দু শুনছেন?

Follow Us :

এ রাজ্য নাকি মমতার হাতে পড়ে ছারখার হয়ে যাচ্ছে, তাই গেঞ্জি ছাপিয়ে প্রতিবাদে নেমেছেন শুভেন্দু অধিকারী আর ওনার সতীর্থরা। চোর ধরতে ডেকে আনছেন ইডি-সিবিআইকে। একবারও উত্তর দিচ্ছেন না সেই মোক্ষম প্রশ্নের যে বিজেপির রাজ্য সদর দফতরে বসেই বিজেপির তাবড় নেতাদের উপস্থিতিতেই দেখানো হয়েছিল নারদা স্টিং অপারেশনে আরও অনেক তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীও গোছা করে টাকা নিয়েছেন। না, তাঁকে এথিকস কমিটি ডাকেনি, কারণ তিনি সময় আর সুযোগ বুঝেই নৌকো বদলেছেন। এখন তিনি আর তৃণমূল নন, কিন্তু সেই ভিডিও তো থেকেই গেছে, কারণে অকারণে সেই ভিডিও সামনে চলেই আসে। মমতা চোর ছাপানো টি-শার্ট গায়ে চড়িয়ে নিজের চর্বিযুক্ত নধর শরীর তো ঢাকাই যায়, কিন্তু সেই ছবি কি ঢাকা যায়? নাকি নিজের চুরির দায় সামলাতেই অন্যকে চোর চোর বলে চিৎকার করাটা খানিক পকেটমারেদের পকেটমার পকেটমার বলে চ্যাঁচানোর মতোই এক পরিকল্পনা মাত্র? তা সে যাই হোক, চোর, জেল, ইডি, সিবিআই ইত্যাদি ভিজিলেন্স প্রসঙ্গ এসে গেলেই রাজ্যের শান্তিশৃঙ্খলার প্রসঙ্গ উঠে আসবেই, উঠে এসেছে। তৃণমূলের নেতারা টুইট করছেন, এর মধ্যেই ভাইরাল। এনসিআরবি, ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর হিসেব বলছে সারা দেশের মধ্যে কলকাতাতেই সবথেকে কম অপরাধ হয়েছে। দেশের সবকটা বড় শহর, মানে দিল্লি, চেন্নাই, বেঙ্গালুরু, মুম্বই, তিরুবনন্তপুরম, জয়পুর, পাটনা, লখনউ ইত্যাদির মধ্যে দিল্লিতে সব থেকে বেশি আর কলকাতাতে সবথেকে কম অপরাধের ঘটনা ঘটেছে। সেটাই আমাদের বিষয় আজকে, এতবড় খবর খোকাবাবুর কানে পৌঁছেছে? দেশের বড় শহরের মধ্যে কলকাতায় অপরাধ কম, শুভেন্দু শুনছেন?

২০২২ সালের ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর রিপোর্ট হাতে এসেছে। তাতে বলা হচ্ছে দেশের বড় শহরগুলোর মধ্যে আমাদের কল্লোলিনী তিলোত্তমার ক্রাইম রেট সবথেকে কম। ক্রাইম রেট ব্যাপারটা হল প্রতি লক্ষ জনসংখ্যায় কত অপরাধ হয়েছে, তার হিসেব। বিভিন্ন থানাতে গেলেই একটা বোর্ড ঝোলে, নিশ্চয়ই দেখেছেন। সেখানে সেই থানা এলাকাতে কত এবং কোন ধরনের অপরাধ ঘটেছে তার হিসেব লেখা থাকে, এখন তো সেই হিসেব কমপিউটারেও নথিবদ্ধ করতে হয়, তারপর তা একসঙ্গে রেখে শহরের জনসংখ্যার অনুপাতে ওই ক্রাইম রেট বার করা হয়। সেই হিসেব বলছে, দিল্লির ক্রাইম রেট ১৯৫২.৫, মুম্বইয়ের ৪৮৩.৯, চেন্নাইয়ের ৪৫০.১ আর কলকাতার ৮৬.৫। আচ্ছা এই দিল্লির অপরাধ সামলানোর দায়িত্ব কার? কেজরিওয়ালের?

আরও পড়ুন: আজকে (Aajke) | কেসিআর-এর শিক্ষা কি তৃণমূল নেবে?

না, দিল্লির পুলিশ ব্যবস্থা দেখে দেশের স্বরাষ্ট্র দফতর মানে অমিত শাহ, তো তেনার দেখরেখে ক্রাইম রেট ২০০০-এর কাছা কাছি আর আমাদের রাজ্যে স্বরাষ্ট্র দফতরের দায়িত্বে থাকা আমাদের মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা আমাদের শহরের ক্রাইম রেট ১০০-র কম। এই তথ্য কি শুভেন্দু অধিকারীর চোখে পড়েছে? এখানেই শেষ নয়, অপরাধের অভিযোগ নেওয়ার পরে তার তদন্ত এবং চার্জশিট দেওয়ার ক্ষেত্রেও আমাদের শহর সবথেকে উপরে। কলকাতায় অপরাধের অভিযোগ আসার পরে ১০০টার মধ্যে ৮৮টা অভিযোগের চার্জশিট দেওয়া হয়, দিল্লিতে মাত্র ৩০টা। মানে ১০০টা অভিযোগের ৭০টার কোনও কিনারাই হয় না। এবার আসুন রাজ্য ভিত্তিক ক্রাইম রেটের হিসেবে। সেখানে আবার আরও বড় খবর, দেশের ক্রাইম রেটের প্রায় শীর্ষে রয়েছে গুজরাত, আমাদের চৌকিদারের রাজ্য, ৭৩৮.৯, আর তারপরেই আছে মধ্যপ্রদেশ ৫৬৯.৩, তারপরে উত্তরপ্রদেশ ৩২২ আর শেষে আমাদের রাজ্য ১৮২.৮। তার মানে আমাদের রাজ্য, আমাদের রাজ্য রাজধানী দেশের অন্যতম শান্তির মরুদ্যান। এবং এসব হিসেব মমতা ব্যানার্জি বা রাজ্য সরকারের তৈরি নয়, এনসিআরবি-র রিপোর্টে এই তথ্য জানানো হচ্ছে। এটা আজকের বিষয়ও নয়, গত বছর আষ্টেক আমাদের রাজ্য এবং রাজ্য রাজধানীতে অপরাধ কমছে, গ্রামে নারী নির্যাতন কমেছে কিন্তু তা এখনও তেমন আশাজনক নয়, সেখানে আরও কাজ করা দরকার কিন্তু গ্রামেও সাধারণ অপরাধ কমেছে। ঠিক এই মুহূর্তে দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ চাষজোগ্য জমিতে ধান কাটা পড়ে আছে, যা আগে ভাবাই যেত না। ধান লুঠ হত, চুরি হত, তা আটকাতে রাত পাহারা দিত মানুষ, এখন তেমনটার দরকার হয় না। কলকাতার নাইট লাইফ ক্রমশ বাড়ছে, মানে এখন কল্লোলিনী তিলোত্তমার নিঃঝুম রাত নামে অনেক অনেক পরে, শনি রবি তো সারা রাত সরগরম থাকে শহর। মহিলারা অনেক বেশি সুরক্ষিত। কিন্তু এসব খবর শুভেন্দু অধিকারী অ্যান্ড কোম্পানির কাছে নেই। তাঁরা একবারও তাঁদের একান্ত আপনজনের কাছে প্রশ্ন রাখছেন না, মোটা ভাই দিল্লিতে এত অশান্তি কেন? আমরা আমাদের দর্শকদের কাছে প্রশ্ন করেছিলাম, কেন্দ্র সরকারের রেকর্ড বলছে সারা দেশে বড় শহর, মেট্রো শহরগুলোর মধ্যে আমাদের রাজ্য রাজধানী অপরাধের হার সবচেয়ে কম। রাজ্যেও অপরাধের হার গুজরাত, উত্তরপ্রদেশ বা মধ্যপ্রদেশ ইত্যাদির মতো বিজেপি শাসিত রাজ্যের চেয়ে কম, এটা কি রাজ্য সরকারের এক বিরাট কৃতিত্ব নয়? শুনুন তাঁরা কী বলেছেন।

আমাদের রাজ্যে সব সমস্যা মিটিয়ে এক সোনার বাংলা হয়ে গেছে এমনটা কিছু তৃণমূল নেতা দাবি করেন বইকী। অন্যদিকে বিরোধী দল বিজেপি বা বামেরা এক স্বরেই রাজ্য যে এক্কেবারে মায়ের ভোগে চলে গেছে তা ক্ষণে ক্ষণে জানান দেন। তাঁদের মিছিলে মিটিংয়ে সেই কথা বলা হয়। কিন্তু অবস্থাটা ততখানি ভালোও নয়, মানে এক সোনার বাংলা গড়া হয়ে গেছে তেমনটাও নয়, আবার কিচ্ছু হয়নি তাও নয়। সেই হওয়ার তালিকায় আছে রাজ্যের সাধারণ অপরাধের হার, রাজ্য জুড়ে, তা কমেছে, রাজধানী কলকাতাতে কমেছে। অপরাধ হলে তার কিনারা হচ্ছে, দোষীদের শাস্তি হচ্ছে, কলকাতা বা রাজ্যের বড় শহরে মহিলারা সুরক্ষিত, যদিও নারী নির্যাতনের হিসেব কিন্তু রাজ্যের সরকারকে ততটা ভালো খবর এনে দেয়নি। তবে দেশের মধ্যে আমাদের রাজ্য বা রাজ্য রাজধানী কলকাতা অপরাধের হারে সবচেয়ে কম, সেটা আমাদের গর্বের বিষয় বইকী।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments