Placeholder canvas
HomeScrollপুরনো ফাইল খুলে বিরোধীদের জেলে পোরার হুমকি মমতার

পুরনো ফাইল খুলে বিরোধীদের জেলে পোরার হুমকি মমতার

Follow Us :

কলকাতা: দুর্নীতির অভিযোগে দলের যেসব নেতা, মন্ত্রী, বিধায়ক জেল খাটছেন, তাঁদের পাশে দাঁড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। বৃহস্পতিবার নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে (Netaji Indoor stadium) তৃণমূলের বিশেষ অধিবেশনে নেত্রী বলেন, পার্থ (Partha Chaterjee), মানিক, বালু, কেষ্টরা চোর, এটা আমি বিশ্বাস করি না। ওদের জেলে আটকে রাখা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী পুরনো ফাইল খুলে বিরোধীদেরও জেলে পোরার হুমকি দেন। তিনি বলেন, আমাদের চারজনকে জেলে রাখলে আমিও ওদের আটজনকে জেলে ভরব। সব পুরনো ফাইল খুলে বার করব। একইসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী দলের সাংসদ মহুয়া মৈত্রের পাশে থাকারও বার্তা দিয়েছেন। তিনি বলেন, মহুয়ার বিরুদ্ধে চক্রান্ত হয়েছে। ওকে তাড়ানোর চেষ্টা চলছে।

সারদা এবং নারদ কাণ্ডে সিবিআই কিংবা ইডির হাতে গ্রেফতার হয়ে অতীতে জেল খেটেছেন তৃণমূলের একাধিক নেতা, মন্ত্রী, সাংসদ। তাঁদের মধ্যে ছিলেন মদন মিত্র, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম-সহ অনেকেই। সেই সময় মমতা তাঁদের হয়ে পথে নেমেছিলেন। গলায় আমরা সবাই চোর লেখা পোস্টার ঝুলিয়ে তিনি দলের লোকজনকে নিয়ে মিছিল করেন। সভা, সমিতিতে মুখ্যমন্ত্রী প্রশ্ন তুলতেন, কুণাল চোর, টুম্পাই চোর, মদন চোর, মুকুল চোর, আমি চোর?

এবার শিক্ষায় নিয়োগ, রেশন বণ্টন, গরু পাচার, কয়লা পাচার কাণ্ডে গ্রেফতার হয়েছেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়, প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী এবং বর্তমান বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল, মানিক ভট্টাচার্য, জীবন সাহার মতো বিধায়ক। ইডির দাবি, তাঁদের সকলের বিরুদ্ধেই নিত্যনতুন প্রমাণ হাতে আসছে।

আরও পড়ুন: ভারতের বিশ্বকাপে হেরে যাওয়া নিয়ে বিজেপিকে তোপ মমতার

মমতা এদিন বলেন, পার্থ, বালু, কেষ্ট সবাই জেলে। এভাবেই কী সব চলবে? কিছু হলেই ইডি, সিবিআইকে লেলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আপনাদের যখন চেয়ার থাকবে না, তখন তো সেলে থাকতে হবে। আমাদের সবাই চোর। আপনারা সব সাধুপুরুষ নাকি। কোটি কোটি টাকা কামাচ্ছেন। দেশের সমস্ত সম্পত্তি বেচে দিচ্ছেন। আবার বড় বড় কথা বলছেন।

মুখ্যমন্ত্রী এভাবে পার্থ, বালুদের পাশে দাঁড়ানোয় মুখ খুলেছেন বিরোধী নেতারা। বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা বলেন, চুরি করেছেন বলে নেতা-মন্ত্রীরা জেলে গিয়েছেন। আর মুখ্যমন্ত্রী প্রকাশ্য সভায় মিথ্যাচার করে বেড়াচ্ছেন। সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, তৃণমূলের যত বড় নেতা, তিনি তত বড় চোর। মুখ্যমন্ত্রী সেই চোরেদের সমর্থন করছেন। আমরা বলছি, সব চেয়ে বড় চোর কালীঘাটে বসে আছেন। ইডি, সিবিআই তাঁকে কেন ধরছে না। একটা গদ্দার যা বলছে, ইডি, সিবিআই তাই করছে। যখন তখন রেড করছে। আর আমাদের লোকজনকে ধরছে।

আরও অন্য খবর দেখুন

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments