Placeholder canvas

Placeholder canvas
HomeScroll৩ সরকারি কমিটি থেকে আচমকা ইস্তফা দেবের

৩ সরকারি কমিটি থেকে আচমকা ইস্তফা দেবের

তারকা সাংসদের কমিটি থেকে পদত্যাগ নিয়ে তৃণমূলে জল্পনা

Follow Us :

পশ্চিম মেদিনীপুর: একাধিক সরকারি কমিটি থেকে ইস্তফা (Resignation) দিলেন ঘাটালের তৃণমূল সাংসদ অভিনেতা দেব (Dev)। ঘাটাল মহকুমা হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান পদ থেকে শনিবার ইস্তফা দিয়েছেন। পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলাশাসককে তিনি চিঠিও দিয়েছেন। একইসঙ্গে দেব ঘাটাল রবীন্দ্র শতবার্ষিকী মহাবিদ্যালয়ের পরিচালন সমিতির চেয়ারম্যান এবং বীরসিংহ উন্নয়ন পর্ষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদও ছেড়ে দিয়েছেন। লোকসভা ভোটের মুখে তৃণমূলের এই তারকা সাংসদের তিনটি সরকারি কমিটি থেকে পদত্যাগ করা নিয়ে শাসকদলের অন্দরে নানা জল্পনার সৃষ্টি হয়েছে।

সম্প্রতি দেব জানিয়েছিলেন,তিনি আর লোকসভা ভোটে দাঁড়াতে চান না। বিভিন্ন সময়ে তাঁর কথাবার্তাও একটু বেসুরো মনে হচ্ছিল। জেলা তৃণমূলের একাংশের বক্তব্য ছিল, ঘাটালের প্রাক্তন বিধায়ক শঙ্কর দোলুইয়ের সঙ্গে মতবিরোধের জেরে দেব নিজেকে দলের থেকে একটু দূরে সরিয়ে রাখছিলেন। তাঁর প্রযোজনা সংস্থার কিছু সিনেমা নিয়েও দলের মধ্যে প্রশ্ন উঠেছে। প্রধান ছবিতে পঞ্চায়েত প্রধানের দুর্নীতি, গা জোয়ারি, ভোট না করে বছরের পর বছর পঞ্চায়েত প্রধান হয়ে ছড়ি ঘোরানো ইত্যাদি দেখানো হয়েছে। এমনকী ব্যালট পেপার খেয়ে নেওয়া পর্যন্ত দেখানো হয়েছে ওই সিনেমায়। উল্টোদিকে দেব ওই ছবিতে অভিনয় করেন এক সৎ এবং ডাকাবুকো পুলিশ অফিসারের চরিত্রে। গত পঞ্চায়েত ভোটে রাজ্যে ব্যালট পেপার খেয়ে নেওয়ার ঘটনা ঘটেছিল। এই ছবি নিয়ে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের কোনও ক্ষোভ থাকতে পারে।

আরও পড়ুন: ৫ দিন ধরে নিখোঁজ শিশুর দেহ মিলল কামারহাটির পুকুরে

জানুয়ারি মাসে কালীঘাটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে পশ্চিম মেদিনীপুরের নেতাদের সঙ্গে দলের শীর্ষ নেতৃত্ব বৈঠক করেন। সেই বৈঠকে নেত্রী বলেন, দেব আমাদের দলের সম্পদ। দলের কিছু নেতার আচরণ নিয়ে ওর অসুবিধে হচ্ছে। ও শিল্পী মানুষ। কেন তোমরা ওর সঙ্গে এমন করছ। ও ভোটে দাঁড়াবে। সেই বৈঠকে দেব বলেন, দল যা বলবে, আমি তাই করব। এ কথা বলার পরেও আচমকা কেন দুবারের সাংসদ দেব ভোটের মুখে তিনটি সরকারি কমিটির গুরুত্বপূর্ণ পদ ছেড়ে দিলেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

বিজেপির রাজ্য মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বলেন, কেন দেব ইস্তফা দিলেন ওই সব কমিটি থেকে, তা তিনি এবং তাঁর দলের নেতারা জানেন। তবে এটা বলতে পারি, তৃণমূলের জাহাজ ডুবতে চলেছে।

আরও খবর দেখুন 

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments