Placeholder canvas

Placeholder canvas
HomeScrollদশম শ্রেণির ছাত্রীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, পাশে পড়ে চিরকূট
Basirhat

দশম শ্রেণির ছাত্রীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, পাশে পড়ে চিরকূট

দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীর উপর শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ

Follow Us :

উত্তর ২৪ পরগনা: দশম শ্রেণির ছাত্রীকে (Class Ten Student) কুপ্রস্তাব, অপমানে আত্মঘাতী (Hanging Body) নাবালিকা। ঘর থেকে উদ্ধার হয় ছাত্রীর ঝুলন্ত দেহ। তার সঙ্গে একটি সুইসাইড নোট। সেখানে লেখা ছিল পাশের বাড়ির ছেলের নাম। মৃত ছাত্রীর পরিবারে পাশে দাঁড়াল বিজেপি। বসিরহাটের (Basirhat) হিঙ্গলগঞ্জের (Hingalganj) লেবুখালীর দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল ওই নাবালিকা। দিন আনা দিন খাওয়া পরিবারের সন্তান ছিল সে। বাবা পাঁচু দাস খেয়ার বোর্ড চালিয়ে কোনওরকমে সংসার চালান। দুখিরাম দাসের সবসময় প্রিয়ঙ্কাকে উত্ত্যক্ত করত,এবং তার সাথে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হওয়ার চাপ দিত। তাতে রাজি না হয়নি। ফেব্রুয়ারি এক রাতে নাবালিকাকে একা পেয়ে দুখিরাম দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীর উপর শারীরিক নির্যাতন চালান। পুলিশ একটি আত্মহত্যার মামলা রুজু করে। ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বসিরহাটের হিঙ্গলগঞ্জে।

জানা গিয়েছে, ২ ফেব্রুয়ারি ওই ছাত্রীর ঘর থেকে তার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। ছাত্রীর দেহের পাশ থেকে উদ্ধার হয় একটা সুইসাইড নোট। তাতে লেখা রয়েছে পাশের বাসিন্দার নাম। তিনি নাকি সবসময় ওই ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করতেন, এবং তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হওয়ার কথা বলত। এই ঘটনা কাউকে,সে যেন না জানায়। যদি কাউকে জানায় তাকে প্রাণে মেরে দেওয়া হুমকি দিয়েছিল। সেই ভয়ে কাউকে কিছু না বলে ঙয়ে অপমানে আত্মঘাতী হয়। ছাত্রীর পরিবার ও স্থানীয়রা দুখিরামের ফাঁসিরদাবি জানিয়েছে।

আরও পড়ুন: নকলে বাধা, ক্লাসরুমে ভাঙচুর চালাল মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা

সোমবার দশম শ্রেণির ছাত্রীর পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন বিজেপির হিঙ্গলগঞ্জ মণ্ডল পক্ষ থেকে বিজেপি সদস্যরা। বিজেপির সদস্যদের দেখে ছাত্রীর পরিবার কান্নায় ভেঙে পড়েন। উপস্থিত ছিলেন পুষ্পেন্দু রয় মন্ডল সভাপতি,পার্থপ্রতিম জানা সহ সভাপতি,চামেলী গায়েন সহ সভাপতী,সুজিত পরামানিক হিঙ্গলগঞ্জ বিধানসভার কো কনভেনার,সুব্রত মন্ডল এছাড়াও আরো অনেক সদস্যগণ। এ বিষয়ে হিঙ্গলগঞ্জ মন্ডল এক সভাপতি পুষ্পেন্দু রায় তিনি বলেন, আমরা ওই পরিবারের সঙ্গে আছি দোষীর সাজা চাই। তাই যদি না হয় আমরা আন্দোলনের পথে নামব। আর এই বিষয়ে দুলদুলি গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন প্রধান বিধান মুন্ডা তিনি জানিয়েছেন, বর্তমানে পুলিশ প্রশাসন খুবই সক্রিয়। পুলিশের কাজ করছে ইতিমধ্যে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। দুখিরামের বাড়িতে গেলে বলেন তার বাবা জানান ছেলে দোষ করলে সাজা পাবে সাজা পাবে। আইন আইনের পথে চলবে।

আরও অন্য খবর দেখুন

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments