Placeholder canvas

Placeholder canvas
Homeকারার ওই লৌহকপাটকারার ওই লৌহকপাট, ভেঙে ফেল কর রে লোপাট (পর্ব-১৪)
Karar Oi Lauho Kopat

কারার ওই লৌহকপাট, ভেঙে ফেল কর রে লোপাট (পর্ব-১৪)

কৌস্তুভ রায়কে গ্রেফতার করে জেলে রাখা হয়েছে, আজ ২২৯ দিন হয়ে গেল

Follow Us :

আজ নয়, ১৮৯৭ সালে এক মারাঠি ভদ্রলোক রাজদ্রোহিতার দায়ে, দেশদ্রোহিতার দায়ে কাঠগড়ায় উপস্থিত। সেদিন জেল হয়েছিল, ১৮ মাসের জেল। আবার ১৯০৯-এ, আবার সেই একই রাজদ্রোহিতার অভিযোগ, এবারে তাঁর হয়ে সওয়াল করার জন্য ছিলেন মহম্মদ আলি জিন্নাহ। সেবারেও ৬ বছরের জেল খাটার সাজা হয়েছিল, তিনি ওই আদালতে দাঁড়িয়েই বলেছিলেন, আমি কিছু বলতে চাই, সেখান থেকেই চিৎকার করে তিনি বলেছিলেন, স্বাধীনতা আমার জন্মসিদ্ধ অধিকার, আমি তা অর্জন করবই। সেই মানুষটা ছিলেন বাল গঙ্গাধর তিলক। সম্ভবত সেটাই ছিল এই দেশে আদালতে দাঁড়িয়ে এক অভিযুক্তের প্রথম আত্মপক্ষ সমর্থন।

এরপরে গান্ধীজি থেকে অনেকে আদালতে দাঁড়িয়ে নিজেই নিজের হয়ে সওয়াল করেছেন। ভগৎ সিং তো সেই সওয়ালকে এক রাজনৈতিক প্রচার করে তুলেছিলেন, যার পর থেকে আত্মপক্ষ সমর্থনে অভিযুক্তকে সওয়াল করার অনুমতি দেওয়াই বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। দেশে কি উকিল ছিল না, ছিল বইকী, কিন্তু যখন বিচারের বাণী নীরবে নিভৃতে কাঁদে, যখন বিচারের পদ্ধতিতে অভিযুক্ত আইনি পদ্ধতিগুলোকে দুমড়ে মুচড়ে পড়ে থাকতে দ্যাখে, তখন সে নিজেই নিজের হয়ে সওয়াল করতে নামে। আইনের ধারা উপধারা নয়, সে সওয়াল হয়ে ওঠে স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে এক প্রতিবাদ। গত ১০ বছর ধরে আমাদের দেশে ইডি-সিবিআই ইত্যাদি ভিজিল্যান্স সংগঠনগুলোকে দিয়ে যেভাবে মানুষের টুঁটি টিপে সমস্ত প্রতিবাদকে চুপ করিয়ে দেওয়ার চক্রান্ত চলছে, তখন সেই আত্মপক্ষ সমর্থনে নিজেই নিজের সওয়াল করাটাই স্বাভাবিক।

আরও পড়ুন: কারার ওই লৌহকপাট, ভেঙে ফেল কর রে লোপাট (পর্ব-১৩)

এক বানানো দলিল, এক ঘোষিত অপরাধীর কাছ থেকে আনা অভিযোগের ভিত্তিতেই কলকাতা টিভি চ্যানেলের মালিক সম্পাদক কৌস্তুভ রায়কে গ্রেফতার করে জেলে রাখা হয়েছে আজ ২২৯ দিন হয়ে গেল। তিনি আদালতে বলেছিলেন তিনি নিজেই নিজের সওয়াল করতে চান, বিচারক সেই দাবি মেনেই তাঁকে সওয়াল করার অনুমতি দিয়েছেন। বাংলায় ইডি-সিবিআইয়ের মামলার ক্ষেত্রে এটা এক দৃষ্টান্ত হয়ে থাকল। কেবল তাই নয় এটা ছড়াচ্ছে। একইভাবে ইডি-র অভিযোগের ভিত্তিতে অন্য মামলায় অভিযুক্ত জেল হাজতে থাকা অনেকেই এই পদ্ধতি নেওয়ার কথা ভাবছেন।

বৃহস্পতিবারেই ইডি মামলাতে আর এক অভিযুক্ত মানিক ভট্টাচার্য নিজেই নিজের সওয়াল করার আবেদন জানিয়েছেন, সব পদ্ধতি মেনে তাঁকে সেই অনুমতি দেওয়া হবে কি না সেটা অন্য বিষয়, কিন্তু এই ডেসপারেশন, অসহায়তা থেকে এক অন্য ধরনের প্রতিবাদ উঠে আসছে। যে অসহায়তার থেকেই এক গরিব মানুষজন আকাশের দিকে হাত তুলে বলে ও দয়াল বিচার করো, সেই আবেদনের জন্য তার কোনও পুরুত মোল্লা লাগে না, ঠিক তেমনিই এক লাগাতার চলতে থাকা অবিচারের বিরুদ্ধে ফ্লাডগেট খুলে যাচ্ছে। গান্ধীজি বলেছিলেন, সম্মিলিত স্বরকে যে কোনও শাসন ভয় পায়, হ্যাঁ এবার সেই সম্মিলিত স্বর উঠতে শুরু করল আর এই ব্যাপারে কৌস্তুভ রায় সামনের সারিতেই থাকলেন।

দেখুন ভিডিও:

RELATED ARTICLES

Most Popular