Placeholder canvas

Placeholder canvas
HomeScrollঅবশেষে থমকে থাকা বোল্ডার বাঁধের কাজ শুরু

অবশেষে থমকে থাকা বোল্ডার বাঁধের কাজ শুরু

৮০০ মিটার বাঁধের কাজ সম্পন্ন হলে উপকৃত হবে ৩০০ পরিবার

Follow Us :

জলপাইগুড়ি: লোকসভা ভোটের (Lok Sabha Election 2024) আগে থমকে থাকা কোটি টাকার বোল্ডার বাঁধের (Boulder Dam) কাজ শুরু করল সেচ দফতর (Irrigation Department)। মিটতে চলেছে কয়েক দশকের সমস্যা। কোঙ্গার নগর কলোনী এলাকা থেকে গয়েরকাটা শ্মশানঘাট পর্যন্ত প্রায় ৮০০ মিটার বাঁধের কাজ সম্পন্ন হলে উপকৃত হবেন প্রায় ৩০০ পরিবার। ফি বছর আংরাভাসা নদীর ভাঙন নিয়ে দুশ্চিন্তায় থাকেন কোঙ্গারনগর এলাকার বাসিন্দারা। বহু বছরের সেই সমস্যার এ বার পাকাপাকি সমাধান হতে চলেছে। তাতেই খুশির হাওয়া জলপাইগুড়ি জেলার ডুয়ার্স অঞ্চলের গয়েরকাটার কোঙ্গার নগর কলোনির বাসিন্দারা।

কোঙ্গার নগর কলোনি এলাকায় পাশ দিয়ে বয়ে গিয়েছে আংরাভাসা নদী। বছরের অন্যান্য সময় শান্ত থাকলেও বর্ষায় ভুটান পাহাড়ে বৃষ্টি হলেই রুদ্র রূপ ধারণ করে তাণ্ডব চালায় নদী তীরবর্তী এলাকার। পুরনো বাঁধ ভেঙে যাওয়াতে নদীর জল ঢুকে পরে বাসিন্দাদের বাড়িতে। আতঙ্কে পরিবার নিয়ে রাতে অন্যত্র বাস করতে হয়। বিঘার পর বিঘা চাষের জমি,সেগুন বাগান এমনকি যাতায়াতের রাস্তারও ক্ষতি হয়েছে। ভিটে মাটি হারিয়েছেন অনেকেই। তাই সকলেই দাবি বোল্ডার বাঁধের। একাধিক বার প্রশাসনের কর্তারা সেই এলাকা পরিদর্শন করেন। একাধিকবার জলবন্দি মানুষের পাশে ছুটে যেতে দেখা গিয়েছে জেলা পরিষদের সহকারী সভাধিপতি সীমা চৌধুরীকে। আশ্বাস দিয়ে ছিলেন বাঁধ নির্মাণের। সেই বাঁধের কাজ শুরু হল।

আরও পড়ুন: ফের ৬৪০০ জিলেটিন স্টিক উদ্ধার রামপুরহাটে

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে ভোটের দিকে তাকিয়ে নদী বাঁধের শিলান্যাস হয়। পাশাপাশি নির্বাচনের মুখেই বাঁধ নির্মাণের কাজ শুরু করেন। নিম্নমানের বাঁধের কাজের অভিযোগও ওঠে। ভোট মিটতেই কোনও অজানা কারণে সেই কাজ বন্ধ হয়ে যায়। যে সমস্ত বাঁধ নির্মাণ করা হয়েছিল সেগুলো বর্ষায় ভেসে চলে যায়। এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে সেই খবর প্রথম তুলে ধরে ছিল কলকাতা টিভি। যদিও সেচ দফতরের তরফে দাবি, বর্ষা পড়ে যাওয়ার কারণে কাজটি বন্ধ রাখা হয়েছিল সেসময় জরুরী ভিত্তিতে অ্যাপ্রোচ বাঁধ নির্মাণ করা হয়েছিল। নতুন করে আবার নদী বাঁধের কাজ শুরু করায় খুশি এলাকার বাসিন্দারা। এই মুহূর্তে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আর্থিক সাহায্যে চলছে বাঁধ নির্মাণের কাজ। সকলেই চায় প্রশাসন দ্রুত কাজটি সম্পন্ন করুক। না হলে বর্ষায় ভয়ঙ্কর বিপদের আশঙ্কা করছেন এলাকার বাসিন্দারা।

আরও অন্য খবর দেখুন

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments