Placeholder canvas

Placeholder canvas
HomeBig newsইন্ডিয়া জোট ক্ষমতায় এলে বাইরে থেকে সমর্থন তৃণমূলের, ঘোষণা মমতার
Mamata Banerjee

ইন্ডিয়া জোট ক্ষমতায় এলে বাইরে থেকে সমর্থন তৃণমূলের, ঘোষণা মমতার

নেতৃত্ব দিয়ে কেন্দ্রে সরকার গঠনে সাহায্য করব, বললেন তৃণমূলনেত্রী

Follow Us :

হুগলি: ইন্ডিয়া জোট ক্ষমতায় এলে বাইরে থেকে সমর্থন দেবে তৃণমূল। চুঁচুড়ার নির্বাচনী সভা থেকে জানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee)। বুধবার ওই সভায় মমতা বলেন বিজেপি হারলে ইন্ডিয়া জোটকে (INDIA Alliance) বাইরে থেকে সমর্থন করবে তৃণমূল। জোটকে বাইরে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে, সবরকম সাহায্য দিয়ে সরকার গঠন করা হবে। তবে এই জোটে তৃণমূলনেত্রী বাংলার সিপিএম-কংগ্রেসকেও কোনও গুরুত্ব দিতে নারাজ। মমতা বলেন, জোটে বাংলার সিপিএম, কংগ্রেসকে ধরবেন না, ওরা বিজেপির সঙ্গে আছে। বাংলার সিপিএম ও কংগ্রেসের সঙ্গে তৃণমূলের কোনও সম্পর্ক নেই। আমরা দিল্লির রাজনীতিতে ইন্ডিয়া জোটের সঙ্গে আছি। 

গত কয়েকদিন ধরে মমতা দাবি করে আসছেন, বিজেপি এবার ক্ষমতায় আসছে না। এদিনের সভায় তিনি বলেন, চার দফার ভোটে বিজেপি নেই। বাকি তিন দফার ভোটেও বিজেপি থাকছে না। রাজ্যের নাম ধরে ধরে তৃণমূলনেত্রী দাবি করেন, তামিলনাড়ু, কেরল, অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলঙ্গানা, উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ কোথাও বিজেপি জিতবে না। নেতারা বলছিলেন, চারশো পার। দুশোও পার হবে না। আমি বলছি, বিজেপি এবার পগার পার। 

মমতার দাবি, ইন্ডিয়া জোট তিনিই তৈরি করেছেন। এই নামও তাঁর দেওয়া। গত বছর তিনি এবং জেডিইউ নেতা তথা বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার প্রথম বিজেপি বিরোধী জোট গড়ার উদ্যোগ নেন। পরবর্তীকালে অবশ্য নীতিশ কুমার মহাগঠবন্ধন ছেড়ে বিজেপির হাত ধরেন। তিনি তাঁর দলকে এনডিএর শরিক করেন। তাতে তাঁর মুখ্যমন্ত্রিত্ব বজায় থাকে। পরের দিকে মমতার অভিযোগ ছিল, ইন্ডিয়া জোটে তৃণমূল গুরুত্ব পাচ্ছে না। তৃণমূলের থেকে সিপিএমকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। ক্রমশঃ ইন্ডিয়া জোটের সঙ্গে তৃণমূলের দূরত্ব বাড়তে থাকে। 

আরও পড়ুন: মালা রায় ও হাজি নুরুলের মনোনয়ন বাতিলের দাবি

ইতিমধ্যে ভোট এসে যায়। বাংলায় তৃণমূলের সঙ্গে সিপিএম, কংগ্রেস জোট গড়তে চায়নি। মমতাও বলেন, বাংলার কংগ্রেস, সিপিএম বিজেপির দালাল। নির্বাচনী সভাগুলিতে তিনি বারবার বলেন, তৃণমূল বাংলায় ইন্ডিয়া জোট বলে কিছু নেই। আমরা জাতীয় স্তরে ইন্ডিয়া জোটে আছি। ইদানিং তৃণমূলনেত্রী বিভিন্ন সভায় দাবি করেন, ইন্ডিয়া জোট ৩০০ থেকে ৩১৫ আসন পেয়ে দিল্লির ক্ষমতায় আসছে। এই আবহে বুধবার তিনি জানিয়ে দিলেন, ইন্ডিয়া জোট ক্ষমতায় এলে তৃণমূল বাইরে থেকে সব রকমের সাহায্ করবে। 

এর আগেও মমতাকে সভা থেকে বলতে শোনা গিয়েছিল, দিল্লিতে জোট সরকার হলে তৃণমূলই নেতৃত্ব দেবে। কিন্তু এদিন বাইরে থেকে ইন্ডিয়া জোটকে সমর্থনের কথা জানালেন তৃণমূলনেত্রী।  এদিন মমতা বলেন, চার দফায় যে ভোটগ্রহণ হয়েছে, তাতে বিজেপি হারবে। বাকি তিন দফাতেও জেতার খুব একটা সম্ভাবনা নেই। জুমলাবাজি করবে, কিন্তু জিততে পারবে না। ইন্ডিয়া জোটকে নেতৃত্ব দিয়ে, বাইরে থেকে সবরকম সাহায্য করে আমরা সরকার গঠন করে দেব। যাতে বাংলায় আমার মা বোনেদের কোনওদিন অসুবিধা না হয়। ১০০ দিনের কাজে কোনও অসুবিধা না হয়।

অতীতে বাংলার ক্ষমতায় থাকা সিপিএম কেন্দ্রে কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইউপিএ সরকারকে বাইরে থেকে সমর্থন করেছিল। ১৯৯৮ সালে মমতার তৃণমূল বিজেপির সঙ্গেই ছিল। যদিও অটলবিহারী বাজপেয়ীর ১৩ মাসের সরকারকে বাইরে থেকে সমর্থন করেছিল। পরে ১৯৯৯ সাল থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত তৃণমূল বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারের শরিক ছিল। মমতা রেলমন্ত্রী ছিলেন। মাঝের কিছু সময় অবশ্য তৃণমূল বিজোপির সঙ্গে ছিল না।  নেত্রী বুধবার এই কথা কেন বললেন, তা নিয়ে তৃণমূলের অন্দরে নানা চর্চা শুরু হয়েছে। দলের রাজ্য নেতা কুণাল ঘোষ বলেন, নেত্রী নিশ্চয়ই ভাবনাচিন্তা করেই কথা বলেছেন। তা নিয়ে আমার কিছু বলার নেই। 

দেখুন ভিডিও 

RELATED ARTICLES

Most Popular