Placeholder canvas

Placeholder canvas
HomeScrollবাম জমানার জট কেটে প্রাথমিকে নিয়োগ পেল ৩৬৪
Primary Teachers Recruitment

বাম জমানার জট কেটে প্রাথমিকে নিয়োগ পেল ৩৬৪

জট পর কেটে যাওয়ায় আজ খুশি চাকরীপ্রার্থীরা

Follow Us :

কলকাতা: নিজেদের হকের চাকরির দাবিতে ১৫ বছরের লড়াইয়ের অবসান হল ২০০৯ এর চাকরি প্রার্থীদের। অবশেষে প্রাথমিকে নিয়োগ (Primary Teachers Recruitment) পেল ২০০৯ এর ৩৬৪ জন চাকরি প্রার্থীরা। দক্ষিণ ২৪ পরগনার প্রাথমিক শিক্ষা দফতরের সামনে আমরণ অনশনেরর ডাক দিয়েছিলেন ২০০৯-এর চাকরি প্রার্থীরা। ১৮৩৪ জনের প্যানেল প্রকাশের দাবিতে, তাঁরা আমরণ অনশনের ডাক দিয়েছেন। আন্দোলন, ধরনা পঞ্চমদিনে ফের নিয়োগ করল সরকার। মঙ্গলবার ৩৬৪ জনের প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের (Primary Teachers Recruitment)  তালিকা কাল প্রকাশ করল দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষা সংসদ। ইতিমধ্যেই এই জেলায় ১৫০৬ শিক্ষক নিয়োগ হয়েছে। বাকি ৩২৮ নিয়োগ। শিক্ষা ব্যবস্থায় নিয়োগ নিয়ে বিরোধীরা কুৎসা আর অপপ্রচারের রাজনীতি করতে ব্যস্ত। মঙ্গলবার কুণাল ঘোষের (Kunal Ghosh) সঙ্গে তাঁদের মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান অজিত নায়েক। কুণাল ঘোষের হস্তক্ষেপে নিয়োগপত্র হাতে পায় তারা। এদিন নিয়োগপত্র (Appoinment Letter) হাতে পাওয়ার পর তাঁরা আন্দোলনে ইতি টানলেন। বাম জমানার জট এতদিন পর কেটে যাওয়ায় আজ খুশি তাঁরা।

অন্যদিকে তৃণমূল সরকার যত দ্রুত সম্ভব নিয়োগ সংক্রান্ত জট কাটিয়ে যোগ্য প্রার্থীদের চাকরি দিতে চাইছে। রাজ্য সরকারের সদর্থক চিন্তাভাবনার আরও এক বাস্তবায়ন হল আজ। তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ জানান, আজ থেকেই ৩২৮ জন প্যানেলিস্টের চাকরি চিঠি পোস্ট হওয়া শুরু হবে। পাশাপাশি, তিনিও বলেন যে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী- শিক্ষামন্ত্রী আলোচনার মাধ্যমে এই নিয়োগ সংক্রান্ত জট কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছেন। তাই যাঁরা ধর্না দিচ্ছেন তাঁদের আন্দোলন প্রত্যাহার করে নেওয়ার অনুরোধও করেন কুণাল। মঙ্গলবার সকাল ১১ টা নাগাদ দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদে তরফে একটি সাংবাদিক বৈঠক করে চাকরি প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়।

আরও পড়ুন: থানার ওসির বিরুদ্ধে বিজেপি কর্মীদের উপর অত্যাচারের অভিযোগ

অজিত কুমার নায়েক জানান, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) ও ডায়মন্ড হারবার সংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বরাবরই সচেষ্ট ছিল চাকরি দেওয়ার ব্যাপারে। সরকারের সদিচ্ছার কোন অভাব ছিল না বলেই, ২০২১ সালে ডিভিশন বেঞ্চের রায়ের পর ১৫০৬ জনকে অ্যাপয়েন্টমেন্ট দেওয়া হয়। ১৮৩৪ জনের মধ্যে এই ১৫০৬ জন চাকরি পাওয়ার পর যারা বাকি ছিলেন তাঁদের কনভার্টেড প্যানেল এবং অতিরিক্ত পাঁচ শতাংশ যুক্ত করে আজ তালিকা প্রকাশ করা হল। তার ভিত্তিতেই ৩৬৪ জন নিয়োগপত্র পাচ্ছেন। মেধা তালিকা প্রকাশ ও নিয়োগ পত্র পেয়ে যথেষ্ট খুশি আন্দোলনকারীর একাংশ এবং তাদের অন্যান্য সমস্যা পরবর্তী ক্ষেত্রে পর্ষদ কে জানাবে বলে তারা জানিয়েছে।

এই দিন ধর্না মঞ্চে উপস্থিত হয়ে পর্ষদ সভাপতি অজিত কুমার নায়েকের উপস্থিতিতে কুনাল ঘোষ আন্দোলনকারীদের অনশন প্রত্যাহার করার জন্য অনুরোধ করেন এবং নিজে হাতে আন্দোলনকারীদের ফলে জুস খাইয়ে অনশন ভাঙায়। এ বিষয়ে কুনাল ঘোষ বলেন, দীর্ঘ লড়াইয়ের পর অবশেষে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে ২০০৯ এর চাকরিপ্রার্থীদের যে জট ছিল সেটি কেটে গিয়েছে। ধীরে ধীরে সকলকেই নিয়োগ করা হবে। আজ ৩৬৪ জনের মধ্যে সকলকে নিয়োগপত্র দেয়া হল। আগামী দিনে সকলেই যাতে নিয়োগ পায় সেদিকে রাজ্য সরকার দ্রুত ব্যবস্থা নিবে।

অন্য খবর দেখুন

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments