Placeholder canvas

Placeholder canvas
HomeScrollকুয়াদ্রাতকে কাঁধে করে বাসে চাপালেন ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা!

কুয়াদ্রাতকে কাঁধে করে বাসে চাপালেন ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা!

Follow Us :

ভুবনেশ্বর: বছরের প্রথম ডার্বিতে মোহনবাগান সুপার জায়ান্টকে (Mohun Bagan SG) ৩-১ গোলে হারিয়েছে ইস্টবেঙ্গল (East Bengal)। বলা বাহুল্য, সমর্থকদের খুশির সীমা নেই। অধিনায়ক ক্লেইটন সিলভা (Cleiton Silva) যেমন লাল-হলুদ জনতার নয়নের মণি হয়ে উঠেছেন, তেমনই তাঁদের হৃদয়ে পাকাপাকি আসন করে নিয়েছেন কোচ কার্লেস কুয়াদ্রাত (Carles Cuadrat)। এই তাঁর আমলে তিনবার ডার্বির মধ্যে দু’বার চির-প্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাবকে হারিয়েছেন তিনি। শুক্রবার কলিঙ্গ সুপার কাপে জয়ের (Kalinga Super Cup 2024) পর তাই সমর্থকদের উচ্ছ্বাস হল বাঁধনছাড়া। স্টেডিয়ামের গেট থেকে কুয়াদ্রাতকে কাঁধে করে টিম বাসে পৌঁছে দিলেন তাঁরা।

আরও পড়ুন: ২০২৮ পর্যন্ত আইপিএল স্পনসর টাটা, কত কোটি দিচ্ছে জানেন?

ইস্টবেঙ্গল শিবিরে এখন খুশির হাওয়া। কর্মকর্তা দেবব্রত সরকারকে দেখা গেল বেশ খানিকক্ষণ সিলভাকে বুকে জড়িয়ে থাকতে। আশেপাশে সমর্থকরা আনন্দে উদ্বেল, খেলোয়াড়দের সঙ্গে সেলফি তোলা চলছে অনবরত। সবার শেষে বেরলেন কুয়াদ্রাত। সমর্থকরা তাঁর দুই হাত নিজেদের কাঁধে তুলে নিলেন। কোচের মুখে তখন একগাল হাসি।

ঠিক বিপরীত চিত্র মোহনবাগানে। এ ম্যাচে দুই তরুণ ফুটবলারের ভুলে শেষ দুটি গোল হজম করতে হয়েছে তাদের। কিন্তু আপাতত হেড কোচের দায়িত্ব পালন করা ক্লিফোর্ড মিরান্ডা (Clifford Miranda) তাঁদের দোষ দিচ্ছেন না। ডার্বি হারের দায় তুলে নিয়েছেন নিজের কাঁধে। তবে বাগান শিবির এ ম্যাচে পিছিয়ে থেকেই শুরু করেছিল। প্রথম এগারোর ন’জন ছিলেন না এই ম্যাচে। এর মধ্যে ভারতের হয়ে খেলতে গিয়েছেন সাতজন এবং আনোয়ার আলি ও আশিক কুরুনিয়ানের চোট। সেখানে ইস্টবেঙ্গলের হয়ে জাতীয় দলে ডাক পেয়েছেন দু’জন এবং শিবিরে কারও চোট নেই।

দেখুন অন্য খবর:

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments