skip to content
Thursday, June 13, 2024

skip to content
Homeরাজ্যবাংলার ভোট শান্তিপূর্ণই হয়েছে, দাবি মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের
Election Commission

বাংলার ভোট শান্তিপূর্ণই হয়েছে, দাবি মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের

গণনা নিয়ে দুশ্চিন্তার কারণ নেই, বিরোধীদের আশ্বাস রাজীব কুমারের

Follow Us :

নয়াদিল্লি: মানুষ এবার বুলেটের থেকে ব্যালটকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছে বলে দাবি করলেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার রাজীব কুমার (Chief Election Ccommissioner Rajiv Kumar)। সোমবার সাংবাদিক বৈঠকে কমিশনার বলেন, এই প্রথম ভোটে হিংসা হয়নি। বিক্ষিপ্ত কিছু অশান্তির ঘটনা ঘটলেও অন্যান্যবারের তুলনায় শান্তিপূর্ণভাবে হয়েছে ভোট। তাঁর দাবি, লোকসভা নির্বাচনে (LokSabha Election 2024) বিশ্ব রেকর্ড গড়েছে ভারত। দেশে ৬৪.২ কোটি ভোটার ভোট দিয়েছেন। পাশাপাশি ভোট গণনা নিয়ে সব পক্ষকে আশ্বাস দিয়েছেন রাজীব কুমার। কমিশনার বলেন, নির্বাচনী প্রক্রিয়া নিয়ে কারও কোনও সংশয় থাকা উচিত নয়। গণনা আধিকারিক সহ কয়েক লাখ মানুষ, এজেন্ট, মাইক্রো অবজার্ভার, রিটার্নিং অফিসার, অবজার্ভাররা যুক্ত থাকবেন এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে। পুরো গণনা প্রক্রিয়া একেবারে কড়া নজরদারিতে রয়েছে। 

 মঙ্গলবার লোকসভা ভোটের ফলাফল (Lok Sabha Election Result)। আগামী পাঁচ বছর দেশের শাসনভার কার হাতে থাকবে, তা কাল দুপুরের মধ্যেই পরিষ্কার হয়ে যাবে।আজ সোমবার কয়েকটি জায়গায় পুনর্নির্বাচন হচ্ছে। রাজীব কুমার বলেন, বুলেট নয় ব্যালটেই গুরুত্ব দিয়েছে বাংলার মানুষ।পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরার মতো রাজ্যে আগে কী  হত তা কারও অজানা নয়। এবার শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছে। নির্বাচন শান্তিপূর্ণ করার জন্য ২ বছর ধরে প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। কাজটা খুব একটা সহজ ছিল না।  কিন্তু ভোট মেটার পর থেকে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অশান্তির খবর প্রকাশ্যে আসছে। রাজ্যের ভাঙড়, কুলতলি, কাশীপুর, নিউ টাউন থেকে ভোট পরবর্তী হিংসার ছবি ধরা পড়েছে।  ভোট পরবর্তী অশান্তি নিয়ে চিন্তা থাকছেই।  রাজীব কুমার বলেন, আমরা আশাবাদী এবং আত্মবিশ্বাসী, হিংসা হবে না। 

আরও পড়ুন: দলের সব প্রার্থীকে নিয়ে কমিশনে দরবার মহম্মদ সেলিমের

কমিশনার বলেন,এবারের লোকসভা নির্বাচন চলাকালীন নগদ ১০ হাজার কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এটাও কমিশনের তৎপরতার ফল। দক্ষিণ ভারতে কীভাবে টাকা দেওয়া হত দেখেছেন। গতবারের তুলনায় এবার পুনর্নির্বাচনের সংখ্যা অনেক কম। ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে যেখানে ৫৪০টি পুনর্নির্বাচন হয়েছিল, এবার সেখানে মাত্র ৩৯টি বুথে পুনর্নির্বাচন হচ্ছে। তিনি জানান, গত চার দশকের মধ্যে এবার সব থেকে বেশি ভোট পড়েছে জম্মু ও কাশ্মীরে। কমিশনার বলেন, জম্মু ও কাশ্মীরে আমরা খুব শীঘ্র বিধানসভা নির্বাচন আয়োজন করতে চলেছি। লোকসভা ভোটে মানুষ যে ভাবে ভোট দিয়েছে। তাতে বোঝা যাচ্ছে তারা কতটা উৎসাহী

দেখুন ভিডিও

RELATED ARTICLES

Most Popular