Placeholder canvas

Placeholder canvas
Homeরাজ্যনেই পরিষেবা, স্বাস্থ্যকেন্দ্র আজ গোয়াল ঘর!

নেই পরিষেবা, স্বাস্থ্যকেন্দ্র আজ গোয়াল ঘর!

মোহনপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের অবস্থা দেখতে চোখ কপালে উঠবে আপনারও

Follow Us :

মগরাহাট: উদ্বোধন হয়েছিল ঠিকই কিন্তু পরিষেবা এখনও চালু হয়নি। প্রায় পাঁচ বিঘা জমির উপর অবস্থিত মোহনপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র (Mohanpur Primary Health Centre)। এলাকার মানুষকে প্রাথমিক চিকিৎসার পরিষেবা দিতে ২০১১ সালে দক্ষিণ ২৪ পরগনা (South 24 Pargana)-র তৎকালীন সভাধিপতি শামীমা শেখ ১০টি বেডের প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি উদ্বোধন করেন।

দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার মগরাহাটের (Magrahat) মোহনপুর এলাকাসহ আশেপাশের বেশ কয়েকটি অঞ্চলের বাসিন্দাদের প্রাথমিক চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়ার জন্য কোনও হাসপাতাল নেই। জরুরী পরিষেবা পেতে রোগীদের নিয়ে যেতে হয় ২০ কিলোমিটার দূরের হাসপাতালে। বর্তমানে শুধুমাত্র আউটডোর চালু রয়েছে। অভিযোগ বেশিরভাগ সময়ে থাকে না ডাক্তার। দীর্ঘদিন বেহাল অবস্থায় থাকায় প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রটির ধীরে ধীরে বেহাল দশা হয়েছে। স্বাস্থ্য কেন্দ্রে জানলা-দরজা ভগ্ন প্রায় দশায় পরিণত হয়েছে। বিল্ডিং-এর চারিদিকে ঘিরে ধরেছে আগাছা। স্বাস্থ্য কেন্দ্রের পাশেই স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বানানো হয়েছিল আবাসন। সেই আবাসন এখন স্থানীয় কিছু অসাধু মানুষদের দখলে। স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বানানো আবাসনে প্রতিপালন হচ্ছে গরু ও মুরগি। কার্যত গোয়াল ঘরে পরিণত হয়েছে মোহনপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র।

আরও পড়ুন: সদ্যজাতকে বিক্রি করল বাবা-মা! গ্রেফতার দালাল

চিকিৎসা পরিষেবা না পেয়ে দুর্ভোগে দিন কাটাচ্ছেন এলাকাবাসি। স্থানীয় এক বাসিন্দা জানিয়েছেন, উদ্বোধনের পর এলাকার মানুষদের চিকিৎসা পরিষেবা প্রদান করার জন্য সব রকম সরঞ্জাম এসেছিল। সেইসব সরঞ্জাম পড়েই রয়েছে স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মধ্যে কিন্তু মানুষ পরিষেবা পাচ্ছে না। বারবার প্রশাসনের কাছে জানিয়েও কোনও সূরাহা হয়নি। স্বাস্থ্যকেন্দ্রের অবস্থা প্রসঙ্গে মোহনপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান জুলফিকার মন্ডল জানিয়েছেন, সাধারণ মানুষের অসুবিধা সত্যিই হচ্ছে।প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের বেহাল অবস্থার কথা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। কিন্তু আজও একই অবস্থাতে রয়েছে। ডায়মন্ড হারবার জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক জয়ন্ত সুকুল জানিয়েছেন, ওই প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বহির্বিভাগ চালু করা হয়েছে। সপ্তাহে দু’দিন করে এই পরিষেবা দেওয়া হচ্ছে। মগরাহাট দু’নম্বর ব্লকে চিকিৎসকের ঘাটতি রয়েছে। বিষয়টি স্বাস্থ্য দপ্তরকে জানানো হয়েছে। স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে চিকিৎসক নিয়োগ করলে খুব শীঘ্রই মোহনপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র চালু করা হবে বলেই জানিয়েছেন তিনি।

আরও খবর দেখুন

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments