Placeholder canvas

Placeholder canvas
Homeলিডহেমন্ত সোরেনের ৫ দিন ইডি হেফাজত

হেমন্ত সোরেনের ৫ দিন ইডি হেফাজত

শপথের পরেই জোট বিধায়করা হায়দরাবাদে রওনা

Follow Us :

রাঁচি ও নয়াদিল্লি: ঝাড়খণ্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার কার্যকরী সভাপতি হেমন্ত সোরেনকে ৫ দিনের ইডি হেফাজতের নির্দেশ দিল আদালত। অন্যদিকে, এদিন নতুন মন্ত্রিসভা শপথ নেওয়ার পরেই জেএমএম-কংগ্রেস-আরজেডির ৩৫ জন বিধায়ক কংগ্রেস শাসিত তেলঙ্গানার রাজধানী হায়দরাবাদের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। বিধানসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের আগে পর্যন্ত তাঁদের সেখানেই রাখা হবে। আরও ১০ বিধায়ক সন্ধ্যার আগেই রওনা দেবেন হায়দরাবাদে।

ঝাড়খণ্ডের দ্বাদশ মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন প্রবীণ জেএমএম নেতা চম্পাই সোরেন। শুক্রবার রাঁচির রাজভবনের দরবার হলে তাঁকে শপথবাক্য পাঠ করান রাজ্যপাল সিপি রাধাকৃষ্ণন। উল্লেখ্য, এদিনই রাহুল গান্ধীর ভারত জোড়ো ন্য়ায়যাত্রা বাংলার সীমানা অতিক্রম করে ঢোকে ঝাড়খণ্ডে। কংগ্রেস এই রাজ্যের সরকারপক্ষের অন্যতম শরিক দল।

ঝাড়খণ্ডের সদ্য় প্রাক্তন মুখ্য়মন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের একদিনের জেল হেফাজতের মেয়াদ পূর্ণ হচ্ছে আজ। শুক্রবার দুপুরের পরে তাঁকে ফের আদালতে তুলে ১০ দিনের হেফাজতে চাইতে পারে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। কারণ, ইতিমধ্যেই ইডি দাবি করেছে ৬০০ কোটি টাকার জমি কেলেঙ্কারিতে প্রত্যক্ষ যোগাযোগের প্রমাণ রয়েছে। গতকাল, বৃহস্পতিবার হেমন্ত সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হওয়ায় তখনকার মতো একদিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছিল আর্থিক তছরুপ দমন আইনের বিশেষ আদালত।

আরও পড়ুন: মেঘলা-ছায়ায় বৃষ্টির শাসানি, পারদও থমকে

ইডির গ্রেফতারিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়া হেমন্ত সোরেনের আর্জি একবাক্যে খারিজ করে দিল দেশের শীর্ষ আদালত।  বিচারপতি সঞ্জীব খান্না, এম এম সুন্দরেশ এবং বেলা এম ত্রিবেদীকে নিয়ে গঠিত বিশেষ বেঞ্চ বলেছে, সকলেই যদি সুপ্রিম কোর্টে চলে আসেন, তাহলে হাইকোর্টগুলি আছে কী করতে। আগে ঝাড়খণ্ড হাইকোর্টে যান। যদি একজনের মামলা শুনতে হয়, তাহলে সকলের আবেদন গ্রহণ করতে হবে। এই বলে ইডির গ্রেফতারি ও সমনকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে করা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর আর্জি সরাসরি নাকচ করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

উল্লেখ্য, গত বুধবার সাত ঘণ্টা ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদের পর হেমন্তকে গ্রেফতার করে ইডি। তিনি মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফাও দেন। এরপর নতুন মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী চম্পাই সোরেনকে ডাকতে গড়িমসি করছিলেন। শেষপর্যন্ত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে সিনিয়র সোরেনকে সরকার গঠনের আমন্ত্রণ জানান রাজ্যপাল। তার আগে অবশ্য জেএমএম জোটের ৪৭ জন বিধায়কের সমর্থনপত্র রাজ্যপালকে দেওয়া হয়।

আগামী ১০ দিনের মধ্যে চম্পাই সোরেনকে বিধানসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিতে হবে বলে জানিয়েছেন রাজ্যপাল রাধাকৃষ্ণন। শুক্রবার ইডি জানিয়েছে, ৩৬ লক্ষ টাকা নগদ এবং জমি কেলেঙ্কারির যে অভিযোগ রয়েছে, তাতে সাড়ে ৮ একর জমির হিসাব তারা পেয়েছে।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments